মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

কার্যবিবরণী ও গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত

সভারকার্যবিবরণী

 

 

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার

উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের কার্যালয়

ঘিওর, মানিকগঞ্জ।

 

 

                                     জুলাই/১২ ইং মাসের উপজেলা পরিষদ উন্নয়ন সমন্বয়  কমিটির সভার কার্যবিবরণীঃ

সভাপতি                          ঃজনাব আফজাল হোসেন খান  (জোকি), চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, ঘিওর, মানিকগঞ্জ।

সভার স্থান                        ঃ উপজেলা পাবলিক লাইব্রেরী কাম-অডিটরিয়াম।

সভার তারিখ ও সময়           ঃ ২৪/০৭/২০১২ বেলাঃ ১২.০০ ঘটিকা।

 

সভায় উপস্থিত ও অনুপস্থিত সদস্য বৃন্দের নামের তালিকা হাজিরার ক্রমানুসারে পরিশিষ্ট ’’ক’’  তে দেখান হলো।

 

সভার প্রারম্ভে সভাপতি উপস্থিত সকল সদস্যকে স্বাগত জানিয়ে সভার কাজ আরম্ভ করেন । অত:পর বিগত ২২/০৫/২০১২ইং তারিখের অনুষ্ঠিত সভার কার্যবিবরণী সভায় পাঠ করে শুনানো হয়। উহাতে কোন প্রকার সংশোধনী না থাকায়  উহা সভায় সর্বসম্বতিক্রমে গৃহীত হয়।

 

ক্রমিক নং

আলোচ্য বিষয়

সিদ্ধান্ত

বাস্তবায়নে

১।

প্রাণি সম্পদ বিভাগঃ

       উপজেলা প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তা সভাকে  জানান যে, ঘিওর উপজেলা বন্যা প্রবন এলাকা হওয় তে অত্র উপজেলার গবাদি প্রাণি ও হাঁস-মুরগীর মালিকদের  গো-খাদ্য ও পোল্ট্রি ফিড মজুদ করে রাখার পরামর্শ প্রদান করা হয়েছে । এ বিষয়ে আরও ব্যাপক প্রচার চালানোর  প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য তিনি  সকল ইউ,পি চেয়ারম্যাদের অনুরোধ করেন।  এ ছাড়া তিনি  বানিয়াজুরী ইউনিয়ন কৃত্রিম প্রজনন কেন্দ্র  ঝড়ে  পরে যাওয়ায়  কেন্দ্রটি পূনঃ স্থাপন করার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সভার দৃষ্টি আকর্ষন করেন।

 

 

মন্ত্রণালয়ের  ‘‘ প্রাণি সম্পদখাতে ক্ষুদ্র ঋণ কর্মসূচি বাস্তবায়ন ’’ নীতিমালা -২০১১ জারী করা হয়েছে। উক্ত নীতিমালা অনুযায়ী   সুফলভোগীর মধ্যে ক্ষুদ্র ঋণ বিতরণ করা হচ্ছে। বর্তমান মৌসুমে পল্টি ফার্মে ব্লার্ডফ্লু  হতে পারে। তিনি কোথাও  ব্লার্ডফ্লুর অস্তিত্ব পাওয়া গেলে  সংগে সংগে উপজেলা প্রাণি সম্পদ কার্যালয়ে  জানানোর জন্য সকল ইউ,পি চেয়ারম্যানদের অনুরোধ করেন। বিভাগীয় অন্যান্য কাজ সুষ্ঠু  ও সুন্দর ভাবে চলছে।

  গো-খাদ্য ও পোল্টি ফুড মজুদ রাখার বিষরেয়  কৃষকদের উদ্বুদ্ধ করার জন্য সকল ইউ,পি চেয়ারম্যানদেরকে অনুরোধ করা হয়।

 

চেয়ারম্যান (সকল)

ঘিওর, মানিকগঞ্জ।

২।

প্রকৌশল বিভাগঃ

       উপজেলা  প্রকৌশলী সভাকে জানান যে, ২০১০-১২  অর্থ বছরে বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচির (এডিপির) এর আওতায় ১ম , ২য় ও ৩য়  ও ৪র্থ  কিস্তিতে  ৫৯,৮০,০০/-  বরাদ্দ পাওয়া  যায়।   ৫৯,৮০,০০/- টাকার মধ্যে  বিভিন্ন ইউনিয়ন হতে প্রকল্প কমিটির মাধ্যমে ১৬ প্রকল্প এবং টেন্ডারের মাধ্যমে ৬ টি প্রকল্প গ্রহণ করে প্রকল্পগুলো সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে সম্পন্ন করা  হয়েছে। এছাড়া বাসা মেরামত  খাতে ১ম কিস্তিতে ৯,০০০০০/- এবং ২য় কিস্তিতে ৬,০০০০০/- সর্ব মোট ১৫,০০০০০/- টাকা বরাদ্দ পাওয়া যায়। উল্লিখিত  বরাদ্দ দ্বারা   ৩ টি  প্রকল্পের কাজ  যথাযথভাবে  সমম্পন্ন করা হয়েছে । বিভাগীয় অন্যান্য কাজও সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে চলছে ।

কাজের ধারা অব্যাহত রাখার জন্য  উপজেলা প্রকৌশলীকে অনুরোধ করা হয়।

উপজেলা প্রকৌশলী

ঘিওর, মানিকগঞ্জ।

৩।

উপজেলা স্বাস্থ্য প: প: বিভাগঃ

   উপজেলা স্বাস্থ্য ও প:প: কর্মকর্তা  সভাকে  জানান  যে, হাসপাতালের বাসা বাড়ীর টাকা উপজেলা পরিষদ হিসাবে জমা হয় কিন্তু হাসপাতালের কোন  বাসা বাড়ী মেরামত করা হচ্ছে না । তিনি হাসপাতালের বাসা বাড়ী মেরামতের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য সভার দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।

বিধি মোতাবেক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের সিদ্ধান্ত গৃহীত ।

 সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।

 

 

৪।

কৃষি বিভাগঃ

    উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সভায় জানান যে, অত্র উপজেলায় ৮৬৬০  হেঃ জমিতে বোরো ধান  ১০০৯ হেঃ ভূট্রা , ৪৯৪ হেঃ, মরিচ,  ৪২০ হেঃ  পেয়াজ ও ৪২৬ হেঃ জমিতে সব্জি  আবাদ করা হয়েছে। সকল প্রকার সারের মজুদ সন্তোষজনক  অবস্থায় আছে।  বিভাগীয় অন্যান্য কাজ সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে চলছে।

  কাজের ধারা অব্যাহত রাখার জন্য  উপজেলা কৃষি কর্মকর্তাকে অনুরোধ করা হলো।

 উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা, ঘিওর, মানিকগঞ্জ।।

৫।

 

 

খাদ্য বিভাগঃ

    উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক বলেন যে, বর্তমানে  ঘিওর খাদ্য গুদামে  চাউলের মজুদ সন্তোষজনক অবস্থায় থাকলেও গমের মজুদ পর্যাপ্ত অবস্থায় নেই। গমের মজুদ বৃদ্ধির জন্য উর্ধতন কর্তৃপক্ষ বরাবর পত্র প্রদান করা হয়েছে। খাদ্য শস্যের বাজার মূল্য স্থিতিশীল অবস্থায় আছে।  বিভাগীয় অন্যান্য কাজ সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে চলছে।

ঘিওর খাদ্য গুদামে খাদ্যশস্যের  মজুদ সন্তোষজনক রাখার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রককে অনুরোধ করা হয়।

 

উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক , ঘিওর, মানিকগঞ্জ।

৬।

যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরঃ

     উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা সভায়  বলেন যে, ২০১১-১২ অর্থ বছরে  পরিবার ভিত্তিক কর্মসূচির আওতায় বিভিন্ন  ইউনিয়নে  ৮ টি কেন্দ্রে ৩০৬ জন উপকার ভোগীর মধ্যে  ৩১,২৬০০০/- টাকা ক্ষুদ্র ঋণ বিতরন করা হয়েছে । এছাড়া আত্মকর্ম সংস্থান কর্মসূচীর আওতায়  ৩১ জন যুবক/যুব মহিলার মধ্যে  ১০,৬০,০০০/- টাকা যুব ঋন বিতরণ করা হয়েছে । উভয় কর্মসূচির ঋণ  আদায়ের হার ৯২% । এ ছাড়া প্রাতিষ্ঠানিক ও অপ্রাতিষ্ঠানিক প্রশিক্ষনসহ অন্যান্য কার্যক্রম   সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে চলছে মর্মে সভাকে অবহিত করেন।

 

 কাজের ধারা অব্যাহত রাখার জন্য

উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তাকে অনুরোধ করা হয়।

উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা, ঘিওর,মানিকগঞ্জ।

৭।

পরিবার পরিকল্পনা বিভাগঃ

    পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা সভাকে জানান যে, আলোচ্য মাসে ৩৮ জন মহিলা ও ৪ জন পুরুষ  স্থায়ী পদ্ধতি গ্রহণ করেছেন। বর্তমানে  পুরুষ স্থায়ী পদ্ধতির হার বৃদ্ধি পেয়েছে। ১১ জুলাই/১২ বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস সকলের  সার্বিক সহযোগিতায় সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে সম্পন্ন করা হয়েছে । বিভাগীয়  অন্যান্য কাজও সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে চলছে।  

 কাজের ধারা অব্যাহত রাখার জন্য উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তাকে অনুরোধ করা হয়।

উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা, ঘিওর, মানিকগঞ্জ।

৮।

মহিলা বিষয়ক বিভাগঃ উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা  সভায় জানান যে, ভিজিডি কর্মসূচির জুলাই/১২ মাসের বরাদ্দ এখনও পাওয়া যায়নি। মাতৃত্ব ভাতা  বিতরন কার্যক্রমের আওতায়  জানুয়ারী /১২ হতে জুন/১২ পর্যন্ত বরাদ্দ পাওয়া গিয়েছে। অল্প  কিছু দিনের মধ্যে  নীতিমালা অনুযায়ী ভাতা বিতরন কাজ সমাপ্ত করা হবে।  অন্যান্য বিভাগীয় কাজ সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে চলছে ।   

কাজের ধারা অব্যাহত রাখার  উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তাকে অনুরোধ করা হলো।

উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা, ঘিওর, মানিকগঞ্জ।

৯।

উপজেলা সমাজ সেবা বিভাগঃ উপজেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তা সভাকে অবহিত করেন সকল প্রকার ভাতাভোগীদের  ভাতা বিতরণ  কাজ সমাপ্ত করা হয়েছে। বিভাগীয় অন্যান্য  কাজ সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে চলছে।

   কাজের ধারা অব্যাহত রাখার  জন্য উপজেলা সমাজ সেবা  কর্মকর্তাকে অনুরোধ করা হয়।

উপজেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তা, ঘিওর, মানিকগঞ্জ।

১০।

 পল্লী উন্নয়ন বিভাগঃ

   উপজেলা পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা সভাকে অবহিত করেন  একটি বাড়ী একটি খামার প্রকল্পের  সকল সভাপতি ও ম্যানেজারের ব্যবস্থাপনা প্রশিক্ষন সমাপ্ত করা হয়েছে। বর্তমানে ৪ টি বিষয় ভিত্তিক প্রশিক্ষন কার্যক্রম চলছে।  সকল  সমিতির  নিবন্ধন কার্যক্রম সম্পন্ন করা হয়েছে। অত্র উপজেলায় মোট সমিতির সংখ্যা ৩৬ টি মোট সদস্য ১৬৬৬ জন তন্মধ্যে পুরুষ ৫১৪ এবং মহিলা ১১৫২ জন। বিভাগীয় অন্যান্য কার্যক্রম সুষ্ঠু ও সুন্দভাবে চলছে।

 কাজের ধারা অব্যাহত রাখার জন্য  উপজেলা পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তাকে অনুরোধ করা হয়।

উপজেলা পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা, ঘিওর, মানিকগঞ্জ।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

১১।

 

 

 

 

 

 শিক্ষা বিভাগঃ

উপজেলা  শিক্ষা কর্মকর্তা সভাকে জানান তার  বিভাগীয়  কাজ সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে চলছে।

  কাজের ধারা অব্যাহত রাখার  জন্য উপজেলা শিক্ষা  কর্মকর্তাকে অনুরোধ করা হয়।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা । ঘিওর, মানিকগঞ্জ।

১২।

জন স্বাস্থ্য বিভাগঃ উপজেলা প্রকৌশলী (জন স্বাস্থ্য) সভাকে তাঁর দাপ্তরিক কাজ সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে চলছে।

 

  বিধি মোতাবেক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের সিদ্ধান্ত গৃহিত  হয়।   

 

 সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।

১৩।

মৎস্য বিভাগঃ

     উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা  ( অতিঃ দাঃ ) সভাকে জানান যে , বিগত ৭/৭/২০১২ হতে ১৩/৭/২০১২  খ্রিঃ তারিখ পর্যন্ত জাতীয মৎস্য পক্ষ পালন করা হয়েছে । তাঁর দাপ্তরিক কাজ সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে চলছে।

কাজের ধারা অব্যাত রাখার  জন্য উপজেলা মৎস্য  কর্মকর্তাগণকে অনুরোধ করা হয়।

উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা, ঘিওর, মানিকগঞ্জ।

১৪

সমবায় বিভাগঃ

উপজেলা সমবায় কর্মকর্তা সভাকে অবহিত করেন যে, নিন্দাপাড়া আবাসন প্রকল্পের  ঋন আদায় কার্যক্রম  সন্তোষজনক কিন্তু মাইলাগী আবাসন প্রকল্পের সাধারন সম্পাদক ৩৫,০০০/- ঋণ  নিয়েছেন বার বার তাগিদ দেওয়া সত্বেও তিনি ঋণ পরিশোধ করছেন না । তিনি এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সভার পূনঃ দৃষ্টি আকর্ষন করেন।

 বিধি মোতাবেক প্রয়োজনীয ব্যবস্থা গ্রহণের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।

১৫।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা সভাকে জানান যে, ২০১১-১২ অর্থ বছরে ঘিওর উপজেলায়  গ্রামীন অবকাঠামো  সংস্কার ( কাবিখা ) কর্মসূচির আওতায়  ৪৩ টি প্রকল্পে ৩৭১.৩৭৩৪ মেঃ টন খাদ্য শস্য দ্বারা প্রকল্পগুলোর কাজ শতভাগ সম্পন্ন হযেছে ।  গ্রামীন অবকাঠামো রক্ষণাবেক্ষণ কর্মসূচির অওতায়  ৩৫১.৩৮৩৯ মেৎ টন খাদ্য শস্য দ্বারা প্রকল্পের  কাজ বাস্ববায়ন করা হয়েছে । এ ছাড়া অতি দরিদ্রদের জন্য  কর্মসংস্থান কর্মসূচির আওতায় ১২,৬৮,০০০/- টাকার  ৭ টি প্রকল্প সফলভাবে সম্পন্ন  হয়েছে । গ্রামীন রাস্তার ছোট ছোট  সেতু কালভার্ট প্রকলেত্মর আওতায ১৮,৯০,৮৪২ /- টাকায় ১ টি ব্রীজ নির্মান কাজ  শতভাগ সমাপ্ত করা হয়েছে ।  বিভাগীয় অন্যান্য কাজও  সুন্দরবাবে চলছে ।

 

 

 

  ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানগণ জানান যে,  তাদের নিজ নিজ দাপ্তরিক  কাজ সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে চলছে।এ

কাজের ধারা অব্যাহত রাখার জন্য সংশ্লিষ্ট ইউ,পি চেয়ারম্যানগণকে অনুরোধ করা হয়।

ইউ,পি চেয়ারম্যান (সকল), ঘিওর, মানিকগঞ্জ।

 

শ্যালো ঘাট  সম্পর্কে আলোচনাঃ

  উপজেলা নির্বহহী অফিসার সভাকে জানান যে, বিগত  ১৪/৬/২০১২, ২১/৬/২০১২ ও ২৮/৬/২০১২ খ্রিঃ তারিখ  মোট ০৩ টি তারিখ নির্ধারন করে  অত্র উপজেলার ২ টি শ্যলো ঘাট  ১৪১৯  বাংলা সনে ইজারা প্রদানের জন্য  বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে  বিঞ্জপ্তির  কপি সংশ্লিষ্ট সকল  প্রতিষ্ঠানে প্রদান করা হয়েছিল এবং  বিজ্ঞপ্তিটি বহুল প্রচারের জন্য  অত্র  উপজেলার  সকল ইউনিয়নে  ঢোল  সহরতসহ   মাইকিং করা হয়েছিল । । ১৪/৬/২০১২ খ্রিঃ তারিখে তরা ব্রীজ  সংলগ্ন শ্যালো ঘাটের জন্য ০২ টি দরপত্র  পাওয়া যায়  যার সর্বোচ্চ দরমূল্য  ১,০০০০০/- টাকা   ঘিওর ধান হাট সংলগ্ন শ্যালো ঘাটের জন্য কোন দরপত্র পাওয়া য়ায়নি ।  ২১/৬/২০১২ খ্রিঃ তারিখে ২য় বার দরপত্র দাখিলের দিন ধার্য থাকলেও কোন শ্যালো ঘাটের জন্য কোন দরপত্র পাওয়া যায়নি । ২৮/৬/২০১২ খ্রিঃ তারিখে  তরা ব্রীজ সংলগ্ন শ্যালো ঘাটের জন্য  জনাব হারুনুর রশিদ , পিতা হাজী  আব্দুস  ছাত্তার ,  গ্রাম +উপজেলা+ জেলা মানিকগঞ্জ  একটি দরপত্র দাখিল করেছেন  যার দরমূল্য  ১,১২,১০০/- । ঘিওর ধান হাট সংলগ্ন  শ্যালো ঘাটের জন্য কোন দরপত্র পাওয়া যায়নি।   ঘাটগুলোতে খাস আদায় চলছে ।  ইতোমধে  শ্যালো  ঘাট ২ টি ইজারা প্রদানের লক্ষ্যে  ১০/৭/২০১২,২২/৭/২০১২ ও ৩১/৭/২০১২ খ্রিঃ তারিখ নির্ধারণ করে  পূনঃ বিজ্ঞপ্তি  প্রদান করা হয়েছে , কিন্ত  ১০/৭/২০১২ও ২২/৭/২০১২ খ্রিঃ তারিখ  দরপত্র দাখিলের দিন ধার্য থাকলেও  কোন ঘাটের জন্য কোন দরপত্র পাওয়া  যায়নি ।  ইতোমধ্যে নদীতে  বর্ষার যে পানি ঢুকেছিল  তাও কমে যাচ্ছে । এমতাবস্থায়    শ্যালো ঘাট দুই ( ২ ) টির  ইজারা প্রদানের বিষয়ে  তিনি উপস্থিত সকলের মতামত  কামনা করেন। এ বিষয়ে আলোচনায়  অংশ নিয়ে  চেয়ারম্যান ঘিওর ও বানিয়াজুরী সভাকে অবহিত করেন যে,   মানিকগঞ্জ -তিল্লি  এবং ঘিওর দৌলতপুর  ভায়া  টাংগাইল   সংযোগ সড়ক পথ হওয়ায়  উল্লিখিত  শ্যালো  ঘাটগুলোর  গুরুত্ব  একবারে কমে গেছে ।  শ্যালো ঘাটগুলোতে এখন  আর দূর দূরান্ত থেকে  শ্যালো চলাচল করে না  শুধু  মাত্র   স্থানীয়ভাবে  দু-একটি শ্যালো  চলাচল করে থাকে  বিধায়  কোন  প্রতিষ্ঠান বা ব্যক্তি  শ্যালো  ঘাট ইজারা  গ্রহণে   এখন  আর আগ্রহ প্রকাশ করে না  ।  অন্যান্য ইউ,পি চেয়ারম্যানগনও তাদের সাথে একমত প্রকাশ করেন। এবং তরা ব্রীজ সংলগ্ন শ্যালো ঘাটটি  ১,১২,১০০/- টাকায়  ইজারা প্রদানের জন্য  মতামত প্রকাশ করেন । এ বিষয়ে সভায় বিশদ আলোচনা করা হয় । বিস্তারিত আলোচনান্তে  নিম্নরুপ সিদ্ধান্ত গৃহিত হয় ।

সিদ্ধান্ত ঃ

১ ।  তরা ব্রীজ সংলগ্ন শ্যালো  ঘাটটি  সর্বোচ্চ দরদাতার অনুকূলে ১,১২,১০০/- টাকায় ইজারা প্রদানের  এবং ঘিওর ধান হাট সংলগ্ন শ্যালো ঘাটটিতে  খাস  আদায়সহ  দরপত্র বিজ্ঞপ্তি অব্যাহত রাখার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয় ।

বিবিধ আলোচনাঃ

বিবিধ আলোচনাকালে  উপজেলা নির্বাহী অফিসার জানান যে,  উপজেলা পরিষদ মসজিদ এর  ইমাম ও মোয়াজ্জ্বিন  এর  বেতন ভাতা উপজেলা পরিষদ এর কর্মকর্তা/কর্মচারীদের  বেতন ভাতা হতে  প্রদান করা হয় ।  মসজিদের নিজস্ব তহবিলের  কোন  আয় না থাকায়  মসজিদ এর  ইমাম ও মোয়াজ্জ্বিন এর বাড়তি বেতন ভাতা প্রদানে  খুবই অসুবিধার সৃষ্টি হয় । তিনি  মসজিদের নিজস্ব আয় বৃদ্ধির লক্ষ্যে  উপজেলা পরিষদের যাত্রী ছাউনির পাশে এবং কোর্ট বিল্ডিং এর দক্ষিন পাশে   মসজিদের নিজস্ব আয় হতে  কয়েকটি দোকান ঘর উত্তোলনের প্রস্তাব করেন।  এ বিষয়ে সভায় বিশদ আলাপ আলোচনা করা হয় । বিস্তারিত আলোচনান্তে  মসজিদের নিজস্ব আয় বৃদ্ধির লক্ষে উপজেলা পরিষদের যাত্রী ছাউনির পাশে এবং কোর্ট বিল্ডিং এর দক্ষিন পাশে   মসজিদের নিজস্ব আয় হতে  কয়েকটি দোকান ঘর উত্তোলনের সিদ্ধান্ত গৃহিত হয় ।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার   সকল বিষয়ে  অত্যন্ত  সুন্দর , সুষ্ঠূ ও সৌহার্দপূর্ণ পরিবেশে আলোচনা হওয়ায়  সকলকে ধন্যবাদ জানান।

   

 

 

 সভায় আর কোন আলোচনা না থাকায়  সভাপতি মহোদয় উপস্থিত সকলকে  ধন্যবাদ জ্ঞাপন  করে সভার সমাপ্তি ঘোষণা করেন।

                                                                                                                                              

 

 

 

 

 

(মোঃ  আফজাল হোসেন খান (জোকি))

                      সভাপতি

            উপজেলা উন্নয়ন সমন্বয় কমিটি

                          ও

              চেয়ারম্যান উপজেলা  পরিষদ

                 ঘিওর, মানিকগঞ্জ। 

 

    

       

 

 

 

স্মারক নং- উপক//ঘিওর/২০১১-           /১(৩৫)                                       তারিখঃ  ২৭/০৭/২০১২  খ্রিঃ।

অনুলিপি  সদয় অবগতি / অবগতির জন্য প্রেরণ করা হলো ঃ

০১।        মাননীয় সংসদ সদস্য, মানিকগঞ্জ -১।

০২।       জেলা প্রশাসক, মানিকগঞ্জ।

০৩।       ভাইস চেয়ারম্যান/ মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, ঘিওর, মানিকগঞ্জ।

০৪।       চেয়ারম্যান...................................................... ইউ,পি, ঘিওর, মানিকগঞ্জ।

০৫।       উপজেলা ...................................................... কর্মকর্তা, ঘিওর, মানিকগঞ্জ।

০৬।      জনাব.........................................................  ঘিওর, মানিকগঞ্জ।         

 

 

                             

 

 

(মোঃ  আফজাল হোসেন খান (জোকি))

                      সভাপতি

            উপজেলা উন্নয়ন সমন্বয় কমিটি

                          ও

              চেয়ারম্যান উপজেলা  পরিষদ

                 ঘিওর, মানিকগঞ্জ।